বেলেঘাটা ভর্তি হতে নারাজ করোনা আক্রান্ত ব্রিটিশ অভিনেত্রী

চার ঘন্টার ‘নাটক’ শেষে ভর্তি বেসরকারি হাসপাতালে

Ифтшеф ыфтврг

করোনা আক্রান্ত ব্রিটিশ অভিনেত্রীকে নিয়ে ‘নাটক’। কলকাতায় শ্যুটিং করতে আসা বনিতা সান্ধুকে নিয়ে ‘নাটক’। বেলেঘাটা আইডিতে অ্যাম্বুল্যান্সেই রইলেন ৪ ঘণ্টা! ৪ ঘণ্টা অ্যাম্বুল্যান্স থেকে নামতেই চাইলেন না অভিনেত্রী। সুইজারল্যান্ড থেকে লন্ডন, দুবাই হয়ে কয়েকদিন আগে কলকাতায় এসেছিলেন বনিতা সান্ধু।

কলকাতা: করোনা আক্রান্ত ব্রিটিশ অভিনেত্রীকে নিয়ে ‘নাটক’। কলকাতায় শ্যুটিং করতে আসা বনিতা সান্ধুকে নিয়ে ‘নাটক’। বেলেঘাটা আইডিতে অ্যাম্বুল্যান্সেই রইলেন ৪ ঘণ্টা! ৪ ঘণ্টা অ্যাম্বুল্যান্স থেকে নামতেই চাইলেন না অভিনেত্রী।  সুইজারল্যান্ড থেকে লন্ডন, দুবাই হয়ে কয়েকদিন আগে কলকাতায় এসেছিলেন বনিতা সান্ধু। দমদম বিমানবন্দরে নমুনা পরীক্ষা করা হয়। রিপোর্ট পজিটিভ আসে। এরপর চিত্তরঞ্জন ন্যাশনাল হাসপাতালের নিউটাউন ক্যাম্পাসে ভর্তি করা হয়েছিল তাঁকে। ফের পরীক্ষা করা হলে রিপোর্ট পজিটিভ আসে।

তাঁকে চিত্তরঞ্জন ন্যাশনাল থেকে আনা হয় বেলেঘাটা আইডিতে। বেলেঘাটা আইডিতে ভর্তি হতে নারাজ অভিনেত্রী। অ্যাম্বুলেন্স নিয়ে বেরিয়ে যাওয়ার সময় পুলিশ বাধা দেয়। যোগাযোগ করা হয় স্বাস্থ্য কর্তা ও প্রশাসনের সঙ্গে। ব্রিটিশ দূতাবাসকেও জানানো হয়।   শেষপর্যন্ত দূতাবাসের মধ্যস্থতায় বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন তিনি। সেখান থেকে তাঁর ফের করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহ করা হবে। পরীক্ষায় দেখা হবে তিনি করোনার নয়া স্ট্রেনে আক্রান্ত হয়েছেন কিনা।

উল্লেখ্য, করোনাভাইরাস মহামারীর মধ্যেই নতুন আতঙ্ক ছড়িয়েছে এর নতুন স্ট্রেন। ইংল্যান্ডে প্রথমে এই নয়া স্ট্রেনের হদিশ মিলেছিল। ভারতেও ইতিমধ্যেই নতুন স্ট্রেনে আক্রান্ত কয়েকজনের হদিশ মিলেছে।

শুরু থেকেই করোনা থাবা বসায় সিনে জগতে। কণিকা কপূর প্রথম বলিউড তারকা, যিনি করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন। এরপর অমিতাভ বচ্চন থেকে শুরু করে অভিষেক বচ্চন করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন। সংক্রমণের শিকার হয়েছিল মালাইকা অরোরা ও অর্জু কপূরের মতো তারকাও।

বাংলারও বেশ কয়েকজন সিনে তারকা করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন।

উল্লেখযোগ্য বিষয় হল, করোনায় ভারতে কমল দৈনিক মৃত্যু ও সংক্রমণ। সেইসঙ্গে কমেছে দৈনিক সুস্থতাও। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক সূত্রে খবর, দৈনিক মৃত্যুতে দেশে আজ দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে বাংলা। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে ২৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। প্রথম স্থানে রয়েছে মহারাষ্ট্র। ওই রাজ্যে একদিনে মৃত্যু হয়েছে ৩৫ জনের। তৃতীয় স্থানে রয়েছে কেরল। সেখানে গত ২৪ ঘণ্টায় ২৫ জনের মৃত্যু হয়েছে।

দেশে এখনও পর্যন্ত করোনায় মৃত্যু হয়েছে ১ লক্ষ ৪৯ হাজার ৬৪৯ জনের। মোট আক্রান্ত ১ কোটি ৩ লক্ষ ৪০ হাজার ৪৭০ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ২১৪ জনের। গতকাল দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যা ছিল ২১৭। গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্তের সংখ্যা ১৬ হাজার ৫০৫। গতকাল দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ১৮ হাজার ১৭৭।

তবে এরই মধ্যে করোনাকে জয় করে সুস্থ হয়েছেন ৯৯ লক্ষ ৪৬ হাজার ৮৬৭ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১৯ হাজার ৫৫৭ জন। গতকাল দৈনিক সুস্থতার সংখ্যা ছিল ২০ হাজার ৯২৩।

দেশে মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৪৫ শতাংশ। দেশে সুস্থতার হার বেড়ে ৯৬ দশমিক ১৯ শতাংশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here